ফ্রি টাকা ইনকাম | মোবাইলে এয়ারড্রপ মাইনিং করুন 2024

ফ্রি টাকা ইনকাম | মোবাইলে এয়ারড্রপ মাইনিং করুন 2024

মোবাইলে এয়ারড্রপ মাইনিং করে ফ্রি টাকা ইনকাম করতে চান? তাহলে এই পোস্ট আপনার জন্য। বর্তমান সময়ে ক্রিপ্টোকারেন্সি ও এয়ারড্রপ কতটা জনপ্রিয় তা আর নতুন করে বলতে হবে না। এমন মানুষ খুব কম খুঁজে পাওয়া যাবে যারা ক্রিপ্টোকারেন্সি সম্পর্কে জানেনা।

আর এয়ারড্রপ হচ্ছে ক্রিপ্টোকারেন্সির ই একটি অংশ। এই ক্রিপ্টোকারেন্সি কে কাজে লাগিয়ে মানুষ লক্ষ লক্ষ টাকা উপার্জন করছে। তবে আজকে সেই বিষয়ে যাব না আজকে আমরা বলব কিভাবে মোবাইলের সাহায্যে এয়ারড্রপ মাইনিং করে ফ্রি টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এয়ারড্রপ মাইনিং করে ফ্রি টাকা ইনকাম করার পূর্বে মাইনিং সম্পর্কে ছোট্ট পরিসরে জেনে নেয়া যাক।

ক্রিপ্টো মাইনিং কি?

ক্রিপ্টোকারেন্সিতে নতুন ব্লক সংযুক্ত করার প্রক্রিয়াকে মূলত মাইনিং বলা হয়। পাবলিক লেজারে ক্রিপ্টোকারেন্সির প্রতিটা লেনদেন লিপিবদ্ধ করা থাকে। আর মাইনিং হল লেজারে ট্রানজেকশন যুক্ত করার জন্য কম্পিউটার বা মাইনিং করার জন্য অন্যান্য যে সকল উপাদান রয়েছে তার মাধ্যমে কাজ করা। মূলত ক্রিপ্টোকারেন্সি মাইনিং হচ্ছে ক্রিপ্টোকারেন্সিতে যে সকল ট্রানজেকশন হয় সেই ট্রানজেকশন বা লেনদেনের সত্যতা যাচাই করা এবং সেগুলোকে ব্লকে যুক্ত করা। এখন কথা হচ্ছে ব্লক কি? ব্লক হচ্ছে একটি স্পেস বা জায়গা।

মোবাইলে এয়ারড্রপ মাইনিং কি?

মোবাইলে এয়ারড্রপ মাইনিং এর ধরনটা কিছুটা ভিন্ন। কারণ মোবাইল হচ্ছে ছোট্ট একটি ডিভাইস মাত্র। মোবাইলে এয়ারড্রপ মাইনিং করতে হলে আপনাকে হ্যাশ পাওয়ার বাড়াতে হয়। আর মোবাইলে এয়ারড্রপ মাইনিং করে বেশি ফ্রি টাকা ইনকাম করতে চাইলে বেশি বেশি রেফার করতে হয়।

অনেক কয়েন রয়েছে যারা নতুন মার্কেটে আসতে হলে প্রচার প্রচারণা করতে হয়। আর সেই প্রচারণার অংশ হিসেবেই তাদের কিছু অংশ এয়ারড্রপ মাইনিং এর মাধ্যমে কয়েন বন্টন করে থাকে। আর সেই বন্টনের সময় আপনার হ্যাশ পাওয়ার কিংবা রেফারের সংখ্যা যত বেশি হবে আপনার ইনকাম তত বেশি হবে।

মোবাইলে এয়ারড্রপ মাইনিং করে ফ্রি টাকা ইনকামের উপায়

এবার আসা যাক আসল কথায় কিভাবে মোবাইলে কিভাবে এয়ারড্রপ মাইনিং করে ফ্রী টাকা ইনকাম করবেন। মোবাইলে এয়ারড্রপ মাইনিং করার জন্য বর্তমানে অনেক জনপ্রিয় অ্যাপস রয়েছে যেগুলোর মাধ্যমে আপনি কয়েন সংরক্ষণ করতে পারবেন এবং সেগুলো বিক্রি করে ফ্রী টাকা ইনকাম করতে পারবেন। তবে এর জন্য আপনাকে সময় দিতে হবে। কোন নতুন কয়েন যখন এয়ারড্রপ নিয়ে আসে তখন কমপক্ষে ৬ মাস থেকে এক বছর সময় নেয়। আর সেই সময়টাতেই আপনাকে মাইনিং করে যতটুকু সম্ভব কয়েন অর্জন করতে হবে।

বর্তমানে জনপ্রিয় কিছু এয়ারড্রপ মাইনিং এপ্স হচ্ছেঃ

  • Celia ইত্যাদি

Satoshi (সাতোশি)

এয়ারড্রপ জগতে বর্তমানে সব থেকে জনপ্রিয় একটি এপ হচ্ছে সাতোশি। এটা বলার পেছনে যথেষ্ট কারণ রয়েছে। আমি নিজেও অনেকদিন এই অ্যাপে কাজ করছি। এই অ্যাপের মধ্যে বিভিন্ন কোম্পানি তাদের কয়েনগুলো ভাগাভাগি করে দিয়ে থাকে। কিছুদিন আগে Core নামের একটি কয়েন ছিল যেখান থেকে অনেক মানুষ লক্ষ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ফ্রি ইনকাম করেছে।

এই Satoshi অ্যাপের Core কয়েন পাম্প করে সর্বোচ্চ ১ কয়েনের দাম ২০ ডলারেরও বেশি হয়েছিল। বর্তমানে এই Satoshi এপে OEX নামে একটি এয়ার ড্রপ রয়েছে যা অনেক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। কিছুদিন পরেই এই OEX (Open Exchanger) কয়েন উইথড্র করার সুযোগ দেবে। তাই এই এয়াড্রপে এ কাজ না করে থাকলে এখনই Satoshi এপ টি নামিয়ে কাজ করা শুরু করে দিন।

Ice Coin (আইস কয়েন)

এই Ice Coin এর ও অনেক জনপ্রিয়তা রয়েছে। কারণ এই এয়ারড্রপটি কিছুদিন আগে এসেছে এবং এখনো মাইনিং করার সুযোগ দিচ্ছে। যেকোনো সময় এই এয়ারড্রপটি কয়েন উইথড্র করার সুযোগ দেবে, আর আপনার কয়েন যদি বেশি হয়ে থাকে তাহলে আপনি বেশি আয় করার সুযোগ পাচ্ছেন। পাশাপাশি আপনার রেফার সংখ্যা যদি বেশি থাকে তাহলে বেশি কয়েন মাইনিং করতে পারবেন।

Pi Coin (পাই কয়েন)

অনেকদিন হয়েছে Pi Coin এয়ারড্রপটি চলছে। এই এয়ারড্রপটিও হয়তো কিছুদিন পর তাদের Pi নামক কয়েনটি উইথড্র করার সুযোগ দেবে। তাই ফ্রি টাকা ইনকাম করতে চাইলে এখনই মাইনিং শুরু করে দিন।

Athena (এথেনা)

এই Athena এয়ারড্রপটি মার্কেটে নতুন এসেছে তাই চাইলে এই এয়ার্ড্রপ এ কাজ শুরু করতে পারেন। আপনার রেফার সংখ্যা যদি বেশি হয়ে থাকে এবং দীর্ঘদিন যাবত ধৈর্যের সাথে কাজ করেন তাহলে ধৈর্যের ফল হিসেবে ভালো পরিমাণ ফ্রি টাকা আয় করতে পারবেন। মাইনিং করার পাশাপাশি চেষ্টা করবেন যত বেশি রেফার করা যায় ততই লাভবান।

Celia (ছেলিয়া)

এই কয়েনটিও অন্যান্য কয়েনের মতোই কাজ করে। যত এয়ারড্রপ রয়েছে সবগুলো প্রায় এক নিয়মে কাজ করে থাকে। চাইলে এই কয়েনেও কাজ করতে পারেন এবং আপনার কাছে যদি ভালো পরিমাণ কয়েন সংরক্ষিত হয় তাহলে এখান থেকেও ফ্রি টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

শুধু এগুলো নয় বর্তমানে আরো অনেক এয়ারড্রপ রয়েছে ভালো ভালো। আমি শুধুমাত্র বোঝানোর ক্ষেত্রে কয়েকটি উদাহরণস্বরূপ হিসেবে ভালো এয়ারড্রপ ও কয়েনের নাম উল্লেখ করেছি।

এয়ারড্রপে অংশগ্রহণ করবেন যেভাবে

এয়ারড্রপে অংশগ্রহণ করার জন্য প্রথমে আপনাকে উপরের লিংক থেকে কিংবা প্লে স্টোরে গিয়ে আপনার কাঙ্খিত অ্যাপের নাম লিখে গুগল প্লে স্টোর কিংবা অ্যাপ স্টোর এ সার্চ করবেন। এরপর আপনার সেই কাঙ্ক্ষিত অ্যাপসটি নামাতে হবে।

এপ নামানো শেষ হলে অবশ্যই রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। রেজিস্ট্রেশন করার পর অনেক অ্যাপে বিভিন্ন রকম KYC সম্পন্ন করতে হয় অর্থাৎ আপনাকে আপনার পরিচয় ভেরিফাই করতে হবে। আপনার পরিচয় ভেরিফাই করা হলে এরপর আপনি আপনার সেই কাঙ্ক্ষিত কয়েনটি মাইনিং শুরু করতে পারবেন।

এয়ারড্রপ কোম্পানিগুলো অনেক সময় অনেক অফার প্রদান করে থাকে কয়েন বাড়ানোর জন্য সেই অফার গুলোতে অংশগ্রহণ করার চেষ্টা করতে হবে তাহলে বেশি কয়েন পাওয়ার সম্ভাবনা থাকবে। প্রতিটি অ্যাপস এর ক্ষেত্রে প্রায় এই নিয়মগুলো ফলো করা হয়। 

এয়ারড্রপ থেকে কিভাবে ফ্রি টাকা নিবেন

যখন কোন এয়ারড্রপের মাইনিং করার সময় শেষ হয়ে যায় তখন তারা উইথড্র করার জন্য একটি সুযোগ দেয়। সেই সময় আপনাকে কয়েন উইথড্র করার জন্য বিভিন্ন ধরনের এক্সচেঞ্জার লিঙ্ক দিতে বলা হয় যেমনঃ Binance, Trust Wallet, OKX, Metamask etc এই ওয়ালেট গুলো থেকে যেকোনো একটি লিঙ্ক দিতে বলা হয়।

আপনি যখন লিংক দিবেন তখন তারা আপনার সেই এক্সচেঞ্জার ওয়ালেটে কয়েন গুলো পাঠিয়ে দেবে। এরপর আপনি সেই কয়েন গুলো বিক্রি করে বিকাশে, নগদে কিংবা ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে ফ্রিতে টাকা আপনার কাছে নিতে পারবেন।

এয়ারড্রপ এর ক্ষেত্রে সতর্কতা

যেকোনো এয়ারড্রপ দেখলেই সেখানে লাফিয়ে পড়া যাবে না কারণ অনেক এয়ারড্রপ ভুয়া কিংবা মিথ্যা হয়ে থাকে। দেখা গেল আপনি অনেকদিন যাবত কোন কাজ করলেন এবং অবশেষে কোন টাকা পেলেন না তাহলে আপনার নিজের কাছেই খারাপ লাগবে।

তাই কোন এয়ারড্রপগুলো ভালো সেগুলো আপনাকে সর্ব প্রথমে যাচাই করতে হবে এবং সেই এয়ারড্রপগুলোর সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্ট আছে কিনা কিংবা থাকলে তার জনপ্রিয়তা কতটুকু সেগুলো যাচাই করতে হবে। সর্বশেষে আপনাকে বাছাই করতে হবে কোন এয়ারড্রপ আপনি মাইনিং শুরু করবেন।

উপসংহার

এয়ারড্রপ থেকে ফ্রী ঢাকা আয় করতে হলে অবশ্যই আপনাকে সময়ের থেকে বেশি ধৈর্য ধরতে হবে। কারণ এখানে করার মত তেমন কোন কঠিন কাজ নেই। আপনি মাঝে মাঝে অ্যাপ এ ঢুকবেন এবং ঢুকে ক্লাইম বাটনে ক্লিক করলেই আপনার কয়েন গুলো যুক্ত হয়ে যাবে। তাই এয়ারড্রপ মাইনিং অন্যান্য কাজে থেকে তুলনামূলক সহজ। সর্বশেষে এটাই বলব যে আপনি চাইলে এয়ারড্রপে কাজ শুরু করতে পারেন, এতে করে অন্যান্য কাজের পাশাপাশি আপনার কিছু ফ্রি টাকা ইনকাম হয়ে গেল।

FAQS

টেলিগ্রামে এয়ারড্রপ থেকে আয় করা যায়?

হ্যাঁ টেলিগ্রামে এয়াড্রপ থেকে আয় করা যায়। কিন্তু টেলিগ্রামের এয়াড্রপগুলো থেকে যে কয়েনগুলো পাওয়া যায় সেগুলো বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মিথ্যা হয়ে থাকে এবং টাকা পাওয়ার চান্স তুলনামূলক কম থাকে।

অনলাইন থেকে ফ্রি টাকা ইনকাম করা সম্ভব?

হ্যা সম্ভব, তবে আপনাকে সকল বিষয় ভালো করে জানতে হবে। অনলাইন থেকে টাকা আয় করার জন্য আপনার অনেক ধৈর্য্যের প্রয়োজন ও অনেক সময় ব্যয় করতে হবে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top